Search
Close this search box.

ভোটার তথ্য

ভোট দিতে নিবন্ধন করুন

নির্বাচনে আপনি ভোট দিতে পারবেন না যতক্ষণ না আপনি ভোট দেয়ার জন্য নিবন্ধিত হবেন।

ভোট দেওয়ার জন্য নিবন্ধন করতে, আপনাকে অবশ্যই যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক হতে হবে; আপনার অবশ্যই সেই বছরের নভেম্বরের প্রথম মঙ্গলবার বা তার আগে ১৮ বছর বয়সী হতে হবে; এবং আপনাকে অবশ্যই সেই রাজ্যের বাসিন্দা হতে হবে যেখানে আপনি ভোট দেওয়ার জন্য নিবন্ধিত।

আপনার সবশেষ নিবন্ধনের পর আপনার ঠিকানা, দল বা নাম যদি পরিবর্তিত হয়ে থাকে, আপনাকে হয়ত পুনরায় নিবন্ধন করতে হবে। অনেক রাজ্যে নির্বাচনের আগে নিবন্ধন করতে হয়।অনেক রাজ্যে, নির্বাচনের এক মাস আগে আপনাকে নিবন্ধন করতে হবে। সময়সীমার আগে অনুগ্রহ করে
আপনার রাজ্যের নিয়মবিধি জেনে নিন এবং সময়সীমার আগে নিবন্ধন করুন

ভোট দেওয়ার পদ্ধতি

ভোট দেওয়ার তিনটি পদ্ধতি আছে:

অগ্রিম ভোট প্রদান

কয়েকটি রাজ্যে নির্বাচনের আগে সশরীরে আগাম ভোট দেওয়ার বিকল্প আছে। ওই সব রাজ্যে নিবন্ধিত ভোটাররা, নির্বাচনের দিনটির আগে নির্ধারিত দিনগুলোতে ভোট দিতে পারেন। প্রতিটি রাজ্যে বা এলাকায় ভিন্ন নিয়ম এবং সময় থাকে। দয়া করে আপনার রাজ্যের বিস্তারিত নিয়মবিধি জেনে নিন

অনুপস্থিত ব্যালট (ডাকযোগে ভোটদান)

সব রাজ্যেই ভোটারদের জন্য অনুপস্থিত ব্যালটের ব্যবস্থা আছে কিন্তু প্রতিটি রাজ্যের ভিন্ন বিধিনিষেধ রয়েছে। সাধারণত অনুপস্থিত ব্যালটে ভিন্নতা থাকে যার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত – ডাকযোগে আপনার বাসস্থানে ব্যালট পাঠানো যাতে নির্বাচনের দিন বা তার আগে আপনি ডাকযোগে ভোট দিতে পারেন। বহু রাজ্যে কোন ওজর বা বিশেষ কারণ ছাড়া আপনি অনুপস্থিত ভোট দিতে পারেন আবার অনেক রাজ্যে অনুপস্থিত ভোট দেওয়ার জন্য আপনাকে কারণ দেখাতে হবে।

নির্বাচনের দিন ভোটদান

নভেম্বর মাসের প্রথম মঙ্গলবার হচ্ছে নির্বাচনের দিন। নির্বাচনের দিন আপনি সশরীরে ভোট দিতে পারেন কিন্তু আপনাকে নির্ধারিত স্থানে এবং ভোটকেন্দ্র যখন খোলা থাকে সেই সময় ভোট দিতে হবে। কিছু রাজ্যে ভোট দেওয়ার আগে আপনাকে বৈধ ছবিসহ পরিচয়পত্র দেখাতে হবে অথবা আপনাকে অস্থায়ী ভোট দিতে হবে। আপনার রাজ্যের ভোটার পরিচয়পত্র (আইডি) প্রয়োজনীয়তা বিষয়ে জানার জন্য এখানে ক্লিক করুন। নির্বাচনের দিন যখন ঘনিয়ে আসবে তখন আপনার ভোটকেন্দ্র কোথায় তা এখানে জানতে পারবেন।

নির্বাচনের দিন

প্রতি বছর নভেম্বর মাসের প্রথম মঙ্গলবার হচ্ছে নির্বাচনের দিন। নির্বাচনের দিন, আপনি আপনার
দেশের প্রেসিডেন্ট, সেইসঙ্গে আপনার রাজ্যের গভর্নর, সেনেটর, এবং স্থানীয় পরিষদের জন্য ভোট দিতে পারেন। মনে রাখবেন বহু রাজ্যে, আপনি যখন ভোট দিতে যাবেন তখন পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখা প্রয়োজন। ভোট দেওয়ার জন্য, সাধারণত, ড্রাইভার্স লাইসেন্স এবং সরকার – ইস্যু করা আইডি পরিচয়পত্র হিসেবে ব্যবহার করা যায়। আইডি প্রয়োজনীয়তা বিষয়ে আপনি যদি নিশ্চিত না হয়ে থাকেন, অনুগ্রহ করে আপনার স্থানীয় সরকারের কাছ থেকে তথ্য জেনে নিন অথবা ভোটার নিবন্ধন হটলাইনে ফোন করুন 1-888-API-VOTE (1-888-274-8683).

আপনার ব্যালটে কী আছে?

আপনার ভোটার নিবন্ধন যাচাই করার জন্য BallotReady.org ব্যবহার করুন, ভোট দেওয়ার পরিকল্পনা করুন এবং ব্যালটের প্রতিটি নাম ও প্রস্তাব বিষয়ে অনুসন্ধান করুন।

ভোটাধিকার

বহু রাজ্যে ভোট দেওয়ার সময় পরিচয়পত্রের প্রয়োজন হয়না। কিন্তু আপনি যদি এই প্রথমবারের মত ভোটার হন অথবা ডাকযোগে ভোট দেওয়ার জন্য নিবন্ধন করে থাকেন তাহলে আপনি পরিচয়পত্র সঙ্গে নিয়ে যাবেন ভোটকেন্দ্রে। সতর্কতা হিসাবে, ভোট দেওয়ার আগে স্থানীয় পোলিং অফিসের কাছ থেকে এ বিষয়ে জেনে নেবেন অথবা পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখবেন। ভোটদান প্রক্রিয়ায় অংশ নেওয়ার জন্য, সাধারণত, ড্রাইভার্স লাইসেন্স এবং সরকার – ইস্যু করা আইডি পরিচয়পত্র হিসেবে ব্যবহার করা যায়। তবে, আপনি যদি স্থানীয় সরকারি পোলিং অফিসে নিবন্ধন করেন তাহলে আপনি বিনামূল্যে ভোটার কার্ড পাবেন। নির্বচনের দিন আপনি যদি আপনার পরিচয়পত্র এবং রাজ্য-ইস্যু করা ভোটার কার্ড সঙ্গে নিতে ভুলে যান, আপনি তবুও অস্থায়ী ব্যালট দিয়ে ভোট দিতে পারবেন। অস্থায়ী ব্যালট দিয়ে ভোট দেওয়ার আবেদন জানানোর আধিকার আপনার অছে। আপনি নাগরিক কিনা অথবা আপনার নাগরিকত্বের প্রমাণ দেখানোর দাবী জানানোর অধিকার, ভোটকেন্দ্রের কোন কর্মীর বা পর্যবেক্ষকের নেই। তা অবৈধ। ভোটকেন্দ্রের কর্মীরা বেছে বেছে ভোটার আইডি যাচাই করতে পারেন না। আপনার আইডি যদি চেক করা হয় কিন্তু অন্যান্য ভোটারদের আইডি যাচাই করা হচ্ছে না তাহলে অনুগ্রহ করে ভোটার হটলাইনে ফোন করুন: 1-888-API-VOTE (1-888-274-8683).

ভাষা সহায়তা

ভোট দেওয়ার জন্য আপনাকে ইংরেজি ভাষায় কথা বলা, পড়া বা লিখতে জানতে হবে না। একমাত্র প্রয়োজন হচ্ছে যে আপনি নিবন্ধিত ভোটার। কয়েকটি শহরে এবং এলাকায়, নির্বাচনী সামগ্রী একাধিক ভাষায় অনুবাদ করা আবশ্যক। আপনি যদি সে রকম এলাকার বাসিন্দা হন তাহলে আপনি অনূদিত নির্বাচনী সামগ্রী পাবেন। ভোটাধিকার আইনের ২০৩ ধারার অধীনে এই অধিকার সুরক্ষিত। অনুগ্রহ করে apiavote.org/voting-rights এই ওয়ব সাইট দেখুন। যে কোন শহরে বা এলাকায় ভোট দেওয়ার সময় ব্যক্তিগত সহায়তা পাওয়ার অধিকার আপনার আছে। আপনার আত্মীয় বা বন্ধুকে আপনি সঙ্গে নিয়ে যেতে পারেন অথবা ভোটকেন্দ্রের কর্মীদের সহায়তা চাইতে পারেন। ভোটাধিকার আইনের ২০৮ ধারার অধীনে এই অধিকার সুরক্ষিত।
Bengali voter hotline